জাতীয় এইডস/এসটিডি কন্ট্রোল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৮ এপ্রিল ২০২০

আমাদের সম্পর্কে

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অন্যতম শাখা ন্যাশনাল এইডস/এসটিডি কন্ট্রোল (এনএএসসি) এইচআইভি/এইডস এবং এসটিআই সম্পর্কিত সমন্বয়, মনিটরিং, নীতি পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে কাজ করে থাকে। এই শাখাটি জাতীয় কৌশলগত পরিকল্পনা দ্বারা পরিচালিত হয়ে থাকে।

 

এইচআইভিতে প্রথম কোন ব্যাক্তি সনাক্ত (১৯৮৯) হওয়ার চার বছর আগে ১৯৮৫ সালে জাতীয় এইডস কমিটি (এনএসি) প্রণয়ন করা হয়েছিল। এইচআইভি এবং এসটিডি সম্পর্কিত জাতীয় নীতি এবং এইডস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রথম জাতীয় কৌশলগত পরিকল্পনা তৈরি করা হয়েছিল ১৯৯৭ সালে। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশেই প্রথম দেশ যারা এইচআইভি/এইডস সম্পর্কিত একটি পরিপূর্ণ নীতি গ্রহণ করেছে। একইসাথে ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ এইডস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম (বিএপিসিপি) প্রতিষ্ঠিত হয় যা পরে জাতীয় এইডস/এসটিডি প্রোগ্রাম (এনএএসপি) হিসাবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি শাখা হিসাবে অন্তরভূর্ক্ত করা হয়। এটি ২০১৩ সালে সাংগাঠনিক কাঠামো পূনবিন্যাসের মাধ্যমে জাতীয় এইডস/এসটিডি কন্ট্রোল হিসাবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বিভাগ হিসাবে কাজ করে আসছে।

 

এই শাখাটি সেক্টর ওয়াইড অ্যাপ্রোচ (এসডাব্লুপি) এর মাধ্যমে তার কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে, বর্তমানে এটি লাইন ডিরেক্টরের নেতৃত্বে টিবি-লেপ্রোসি এবং এইডস/এসটিডি প্রোগ্রাম নামে যৌথ অপারেশনাল প্ল্যান এর অধীনে চতুর্থ স্বাস্থ্য জনসংখ্যা পুষ্টি সেক্টর প্রোগ্রাম (এইচপিএনএসপি) বাস্তবায়ন করছে। টিবি-এল এবং এএসপি অপারেশনাল প্ল্যানের মধ্যে তিনটি প্রধান উপাদান রয়েছে যার মধ্যে এইডস/এসটিডি প্রোগ্রাম (এএসপি) একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অধীন এইডস/এসটিডি প্রোগ্রামের প্রধান কাজ হল, সম্পর্কিত সরকারী বিভাগ এবং মন্ত্রনালয়, জাতিসংঘের সংস্থা, আইএনজিও, গ্লোবাল ফান্ডের পিআর / এসআর, সিভিল সোসাইটি, কমিউনিটি নেটওয়ার্কগুলির কাজের সমন্বয় করা এবং নেতৃত্বের ভূমিকা পালন করে বিভিন্ন কর্মসূচী বাস্তবায়ন করা। এইডস/এসটিডি প্রোগ্রাম সরকারী জনবল, অপারেশন প্ল্যান জনবল এবং গ্লোবাল ফান্ড সমর্থিত জনবল দ্বারা এইচআইভি / এইডস এবং এসটিআই প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করছে ২০৩০ সালের মধ্যে এইচআইভি নির্মূলের উদ্দেশ্য যাতে বৈশ্বিক লক্ষ্য অর্জন ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জীত হয়।


Share with :

Facebook Facebook